,

দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ মাদক পাচারকারী নিহত ॥ অস্ত্র, গুলি ও মাদক উদ্ধার ॥

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলা সময় ২৪ ডটকম : স্টাফ রিপোর্টার:-গতকাল রোববার দিবাগত গভীর রাতে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।উপজেলার জামালপুর গ্রামে ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন এলাকা কুড়িম মাঠে এ ঘটনা ঘটে।ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, পাঁচ রাউন্ড গুলি, আট প্যাকেট গাঁজা ও বেশ কয়েক বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়।

নিহত যুবকের কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার জামালপুর গ্রামের হাবুর ছেলে নাম হাইদুল (২৬)।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর পুলিশের দাবি, হাইদুল চোরাচালান ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

স্থানীয়রা বাংলা সময় ২৪ ডটকম’কে জানান,কুড়িম মাঠে বিজিবির টহল দলকে লক্ষ্য করে মাদক পাচারকারী ( শাহাবুল ,মাহাবুল,সুমন ,উজ্জ্বল ,লালন ,জাহাঙ্গীর,আনারুল ) গুলি ছুড়লে বিজিবিও পাল্টা গুলি ছোড়ে। পরে মাদক পাচারকারী পালিয়ে গেলে হাবুর ছেলে নাম হাইদুল লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

স্থানীয় প্রাগপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আশরাফুজ্জামান মুকুল ঘটনাস্থল থেকে বাংলা সময় ২৪ ডটকম’কে জানান, গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকার কথা শুনে তিনি সেখানে যান। পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা লাশ ঘিরে রেখেছেন। রাতে সীমান্ত এলাকায় গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটে বলে তিনি জানতে পেরেছেন।

বিজিবির ৪৭ ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল রাশেদ খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলা সময় ২৪ ডটকম’কে জানান, কুড়িম মাঠ এলাকায় বিজিবির টহল দলকে লক্ষ্য করে চোরাকারবারিরা গুলি ছুড়লে বিজিবিও পাল্টা গুলি ছোড়ে। পরে চোরাকারবারিরা পালিয়ে গেলে এক যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ দারা খান বাংলা সময় ২৪ ডটকম’কে জানান,লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, পাঁচ রাউন্ড গুলি, আট প্যাকেট গাঁজা ও বেশ কয়েক বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী।

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা