,

মামী-ভাগ্নের পরকীয়া প্রেমের বলি হলেন নানা !

সারা বাংলা ডেস্ক : বাংলা সময় টোয়েন্টিফোর ডটকম;
কুষ্টিয়া থেকে আপন চৌধুরী সোহান:-গতকাল রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতের দিকে কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামে মামির সঙ্গে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় মজিবুর রহমান (৭০) নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে খুন করেছে তার নাতি। মামী-ভাগ্নের দেখে ফেলায় নানাকে খুনের ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত নাতি নাঈম (২১) এবং নিহতের পুত্রবধূ সামিয়াকে (৩৪) আটক করেছে খোকসা থানার পুলিশ ।

কুষ্টিয়ার খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মেহেদী মাসুদ বাংলা সময় টোয়েন্টিফোর ডটকম‘কে বলেন, বেশ কিছুদিন ধরেই নিহত মজিবুর রহমানের বড় মেয়ের ছেলে নাঈমের সঙ্গে মেজ ছেলের স্ত্রী সামিয়ার অবৈধ সম্পর্ক চলছিল। রোববার রাতে নাঈম ঢাকা থেকে এসে তার নানা বাড়ি যায়। এরপর মামা মাসুদের অনুপস্থিতিতে মামি সামিয়ার সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে লিপ্ত হয়।

খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মেহেদী মাসুদ আরো বাংলা সময় টোয়েন্টিফোর ডটকম‘কে বলেন, সে সময় নানা মজিবুর রহমান বিষয়টি দেখে ফেলেন। ঘটনা প্রকাশ হয়ে যাবে এই ভয়ে নাঈম তার নানাকে ঘর থেকে বারান্দায় বের করে এনে বুকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যান।পরে স্বজনরা মজিবুর রহমানকে উদ্ধার করে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই নাঈমের নিজবাড়ি কুমারখালী থেকে তাকে আটক করে। পরে নিহত মজিবুর রহমানের বাড়ি থেকে তার পুত্রবধূ সামিয়াকেও আটক করা হয়।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘাতক নাঈম সব স্বীকার করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ওসি।

 

 

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা