,

মুক্তাগাছায় পৌর টুলের নামে পরিবহনে মাসে অর্ধ কোটি টাকা চাঁদাবাজী !!

সারা বাংলা ডেস্ক,বাংলা সময় টুয়েন্টিফোর ডটকম, স্টাফ রিপোটার, ময়মনসিংহ থেকে বদরুল আমিন : মুক্তাগাছা পৌরসভার সামনে ও নতুন বাজার এলাকায় সরকার জাহাঙ্গীরের পৌর টুল নামে স্লীপে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা চাঁদাবাজী চলছে। এমন দানবীয় টুল আদায় দেশের কোথাও না হলেও মুক্তাগাছায় যেন ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে বসেছেন ইজারাদার!

পৌর মেয়র অবশ্য ইজারাদারকে নিয়ে বসবেন বলে জানিয়েছেন। এনিয়ে ইতিপূর্বে দৈনিক আলোকিত সকালে সংবাদ প্রকাশ পেয়েছিল। দীর্ঘ এক মাস বন্ধ থাকার পর আবারো চালু হয়েছে।

সড়ক ও জনপদ বিভাগের সড়কে চাঁদা নিচ্ছে মুক্তাগাছা পৌরসভার ইজারাদার চাঁদা আদায়ে তাদের বিভিন্ন রশিদ ছাঁপানো রয়েছে। ঢালাও ভাবে এগুলোর ব্যবহার করছে বিভিন্ন পরিবহনে চাঁদাবাজীতে। মুক্তাগাছা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আব্দুল হান্নান জানিয়েছেন, পৌর টুলের নামে পরিবহন চালকদের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছেন। কোন কোন পরিবহন থেকে ২/৩ শ টাকাও টুলের নামে আদায় করে থাকেন। তারা কতিথ স্লীপ ব্যবহার করে চাঁদাবাজী করেন। এসকল অভিযোগ বরাবরই বলেন আমি বিষয়টি দেখবো। চালকদের অভিযোগ, মেয়র এর মূল তোতা। তার প্রত্যক্ষ প্ররোক্ষ মদদেই পরিবহনে চাদাঁবাজী হয়। চাঁদা না দিলে চালকদের নির্যাতন করা হয়।

এ দিকে মুক্তাগাছা ট্রাফিক পুলিশ, এই বেপরোয়া চাঁদাবাজির কথা অস্বীকার করেননি। পুলিশ জানায়, সবকিছুই হচ্ছে প্রকাশ্যে। স্থানীয় ট্রাফিকের অসহায়ত্ব প্রকাশ পেয়েছে একটি মাত্র শব্দে ‘বিপদে আছি’। বেআইনী চাঁদা আদায়ের দৌরাত্ম্যে বেড়েই চলেছে। স্থানীয় পুলিশ বরাবরই এড়িয়ে যান। এর আগেও কথা হয়েছিল, মুক্তাগাছা থানার অফিসার ইনচার্জের সাথে। গতকাল তাকে পাওয়া যায়নি। থানার ডিউটি অফিসার জানিয়েছেন, তিনি রসুলপুর গিয়েছেন। পরে একাধিকবার ফোন করে তাকে পাওয়া যায়নি।

ভুক্তভোগীরা জানান, ১০০ টাকা হারে রশিদ বহিতে লেখা থাকলেও ৩শ টাকা চাঁদা আদায় করা হয় মুক্তাগাছার উপর দিয়ে আসা বাস, ট্রাক, মিনিবাস, মিনি ট্রাক, ম্যাক্সি, পিকআপ, ট্যাক্সি, মাইক্রোবাস, অটো-টেম্পু, অটো-রিকশা, সিএনজি, ট্রলি, লরী, ভটভটি, নছিমন, করিমন সহ সকল যাত্রী ও মালবাহী গাড়ি থেকে দৈনিক ১ বার চাঁদা দেওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। পৌর টুলের ইজারাদার যেন মাস্তানী কায়দায় চাঁদাবাজী করছে। ইজারাদারের সাথে কোন ভাবেই যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। মেয়র ও শ্রমিক ইউনিয়নের কেউ তার নাম্বার দিতে পারেনি।

বাংলা সময় টুয়েন্টিফোর ডটকম

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা