,

শ্রীলঙ্কার ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলায় ১৫৮ জন নিহত !!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক,বাংলা অলটাইম নিউজ ডটকম,
শারিয়ার জাম্মান:-স্থানীয় সময় আজ রোববার (২১ এপ্রিল) সকালের দিকে শ্রীলঙ্কার গির্জা ও অভিজাত হোটেল গুলোতে ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলায় নিহত বেড়েই চলছে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ করছে । এখন পর্যন্ত ১৫৮ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে ।এতে আহত হয়েছেন ৫ ৫০০ বেশি মানুষ। তবে নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছে শ্রীলঙ্কার সরকার।

অন্যদিকে শ্রীলঙ্কার গির্জা ও অভিজাত হোটেল গুলোতে ঘটনায় কোনো বাংলাদেশি নাগরিক হতাহত হয়েছেন কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয় কলোম্বোয় নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশন।

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বো ও এর আশপাশের গির্জা এবং অভিজাত হোটেলে এ হামলা চালানো হয়।সিরিজ বোমা হামলায় শ্রীলঙ্কার স্কুল-কলেজ দুদিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে শ্রীলঙ্কার সরকার ।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বলছে, আজ রোববার খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বড় ধর্মীয় উৎসব ইস্টার সানডে উদযাপন করা হচ্ছিলো গির্জাগুলোতে। এর মাঝে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কলম্বোর সেন্ট অ্যান্থনি চার্চে বোমা হামলা হয়।

তার ৩০ মিনিট পরেই কলম্বো থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত সেন্ট সেবাস্টিন চার্চ ও ২৫০ কিলোমিটার দূরে বাট্টিকালোয়ার জিওন চার্চেও বোমা হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা।

তাছাড়া কলম্বো কলম্বোর কিংসবারি, সাংগ্রিলা এবং সিনামোন গ্র্যান্ড হোটেলেও তিনটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ সময় সিনামোন গ্র্যান্ড হোটেলে অসংখ্য বিদেশি নাগরিক ছিলেন।

পুলিশের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বলছে, পৃথক হামলায় এ পর্যন্ত ১৫৬ জন নিহত হয়েছেন। আর ৫০০ এর বেশি আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আর আজ দুপুরের হামলায় আরও দুইজনসহ মোট ১৫৮জনের মৃত্যু হয়েছে।

সেন্ট সেবাস্টিন চার্চ কর্তৃপক্ষ হামলার পরের কয়েকটি ছবি প্রকাশ করেছে। তাতে দেখা যায়, চার্চের ভেতর বোমা বিস্ফোরণে বিধ্বস্ত হয়ে গেছে ও মেঝেতে রক্তের দাগ লেগে আছে।

এদিকে দুপুরে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোর দেহিওয়ালা জেলার উপকূলের একটি ছোট্ট হোটেলে সপ্তমবারের মতো বিস্ফোরক হামলা হয়। আরেকটি হামলা হয়েছে কলম্বোর দেমাতাগোদা জেলায়। এ ঘটনায় দুইজনের মৃত্যু হয়।

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মাইত্রিপালা সিরিসেনা এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন। একই সঙ্গে এ বিষয়ে সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা