,

মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতির কার্পাসডাঙ্গা অফিসের অব্যবস্থাপনায় বিপাকে পড়েছে দুইটি ইউনিয়নবাসী !

সারা বাংলা ডেস্ক : বাংলা সময় টোয়েন্টিফোর ডটকম;
শিমুল রেজা,চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ও কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের হাজার হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহকদের সীমাহীন দুর্ভোগ দেখার কেউ নেই, একটু ঝড় বৃষ্টিতেই বিদ্যুৎ বিহীন থাকতে হয় এই দুই ইউনিয়ন বাসীদের।

মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্পাসডাঙ্গা বিদ্যুৎ অফিসের অধীনস্থ গ্রাহকদের সীমাহীন দুর্ভোগ অনন্তকাল ধরে। এ যেন বিদ্যুৎ অফিসের কর্তাদের মনগড়া নিয়মে চলছে দীর্ঘ দিন ধরে। একটু কিছু হলেই বলা হয়, গাছের ডাল ভেঙে পড়েছে বিদ্যুতের খুঁটির উপর, তার ছিঁড়েছে, আজ আর কিছু করার নেই, আগামী কাল সকালের মধ্যে সংযোগ দেব। এ অজুহাত আর কতো দিন। যেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারাদেশে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ দিতে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহন করেছেন, কিন্তু এসব নিয়মের তোয়াক্কা করেনা মেহেরপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্পাসডাঙ্গা অফিস। প্রশ্ন উঠেছে তাদের কর্মদক্ষতা নিয়ে। কিছু কিছু ঝুকিপূর্ণ জায়গা দিয়ে টানা হয়েছে বিদ্যুৎ সংযোগ, যার কারনে একটু ঝড় বৃষ্টিতে বিপর্যয় ঘটে বিদ্যুৎ সংযোগের। ফলে এসব এলাকার মানুষ বিদ্যুৎ বিহীন থাকে ঘন্টার পর ঘন্টা কখনো দুই এক দিন ধরে। এ অবস্থা থেকে বাঁচতে এলাকার সাধারন মানুষ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

অপরদিকে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের অনেকের দাবী পল্লী বিদ্যুতায়ন কর্তৃপক্ষ মিটার চার্জ ও নূন্যতম চার্জ আদায় করে বেশী লাভবান হচ্ছে। অনেকে বলেছেন আমাদের ১-২ টি বাল্ব ছাড়া কিছুই ব্যবহার করিনা, ফলে নূন্যতম চার্জ কিন্তু আমাদের পরিশোধ করতে হচ্ছে, আমারা ব্যবহার কম করলেও তারা তাদের নিয়ম মতোই বিল আদায় করছে। এ বিষয়টিও খতিয়ে দেখতে অনুরোধ করেছেন এলাকাবাসী অনেকেই

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা