,

কুষ্টিয়ায় যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত ছিলো জেলা প্রশাসন

কুষ্টিয়ায় যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত ছিলো জেলা প্রশাসন

কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোল রুমে ব্যরিস্টার সেলিম
আলতাফ জর্জ এমপি ও ডিসি মোঃ আসলাম হোসেন

সারা বাংলা ডেস্ক, বাংলা সময় টুয়েন্টিফোর ডটকম, ঢাকা অফিস : নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ থেমে থেমে গুড়িগুড়ি বৃষ্টি ছাড়া কুষ্টিয়ায় ঘূর্ণিঝড় ফণীর তেমন কোন প্রভাব পড়েনি। শুক্রবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত থেমে থেমে এই গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হয়েছে। বাতাসের অবস্থাও মোটামুটি স্বাভাবিকই ছিল। তবে বৃহস্পতিবার রাতে আবহাওয়া দপ্তরের প্রেস ব্রিফ্রিংয়ে গতকাল বেলা ১১টার দিকে ফনী কুষ্টিয়ার উপর দিয়ে পার হবে এমন ঘোষণার পর মুলত কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহন করেছিল।

জেলা প্রশাসনের কন্ট্রোলরুমে গতকাল সকাল থেকেই কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ, ডিসি মোঃ আসলাম হোসেন, ডিডিএলজি মৃণাল কান্তি দে, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক আজাদ জাহান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব মুহাম্মদ ওবায়দুর রহমান, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব-কেপিসি’র সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, সহ-সভাপতি জামিল হাসান খান খোকন, যুগ্ম সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু, নির্বাহী সদস্য দেবেশ চন্দ্র সরকার। এ সময় কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমানে বাংলাদেশ সকল প্রকার সক্ষমতা অর্জন করেছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কারণে আমরা দ্রুত ফণি’র সংবাদ পেয়েছে। বর্তমান সরকার সকল প্রকার দূর্যোগ মোকবেলায় প্রস্তুত। কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক মো: আসলাম হোসেন জানান, কুষ্টিয়ায় কোন উপকুল নেই। তারপরেও পদ্মা তীরবর্তি এলাকার মানুষ নিরাপদে অবস্থান নিতে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস ও মেডিকেল টিমসহ স্বেচ্ছাসেবক দল রেডি রাখা হয়েছে।

এছাড়াও ত্রাণ মজুদ রাখা হয়েছে।
তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফনী চুয়াডাঙ্গা হয়ে মেহেরপুর অতিক্রম করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এসময় কুষ্টিয়ায় স্বাভাবিক পরিবেশ বিরাজ করেছে। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টিও থেমে গেছে। তবে ফনী আতংকে মানুষজন খুব একটা বাড়ির বাইরে বের হয়নি।

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা