,

একমাত্র সন্তানের জীবন বাঁচাতে দিনমজুর মা-বাবার আকুতি-মিনতী

একমাত্র সন্তানের জীবন বাঁচাতে দিনমজুর মা-বাবার আকুতি-মিনতী

সারা বাংলা ডেস্ক, বাংলা সময় টুয়েন্টিফোর ডটকম, ঢাকা অফিস : শামীম আখতার, ব্যুরো প্রধান খুলনা:
অর্থের অভাবে হার্টের ছিদ্র রোগের চিকিৎসা না হওয়ায় শিশু আফরিনার (৫) অবস্থা দিন দিন অবনতি ঘটছে।

একমাত্র সন্তানের চিকিৎসার জন্য কামলা খেটে খাওয়া মা-বাবা দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোন পথ না পেয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। শিশু আফরিনা উপজেলার কন্দর্পপুর গ্রামের খেটে খাওয়া বাবা আজিজুর রহমান, মা রেশমা খাতুনের একমাত্র সন্তান। বয়স যখন ২ তখন আফরিনার এ রোগ ধরা পড়ে। আজিজুর রহমানের ভিটাবাড়ি ছাড়া কোন জমি নেই। কামলা খেটেই সংসার চালাতে হয়। রেশমা খাতুন একমাত্র বুকের ধন মেয়েকে বুকে জড়িয়ে ধরে সমাজের দানশীল ব্যক্তিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে।

মেয়ের ভবিষ্যত চিন্তায় মা বাবার চোখে সব সময় পানি গড়িয়ে পড়ছে। আজিজুর রহমান জানায় মেয়ের অবস্থা দিন দিন অবনতি ঘটায় শিশু বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. মো. আবিদ হোসেন মোল্যার নিকট নিয়ে গেলে তিনি ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হসপিটাল এন্ড রিসার্স ইনস্টিটিউটের ডা. মো. রোকনুজ্জামান সেলিমের নিকট পাঠান। তিনি পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে জানিয়েছেন আফরিনার হার্টের ছিদ্রের অপারেশন করতে হবে। এ চিকিৎসায় সাড়ে ৫ লাখ টাকা খরচ হবে বলে বাবা আজিজুর রহমানকে জানানো হয়েছে। এত টাকা জোগাড় করা বাবা আজিজুর রহমানের পক্ষে আদৌও সম্ভব নয়।

কামলা খেটে খাওয়া বাবা আজিজুর রহমান ও মা রেশমা খাতুন একমাত্র সন্তানের জীবন বাঁচানোর জন্য ভিটেবাড়ি বিক্রি করলেও অপারেশনের টাকা জোগাড় হবে না বলে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। যে কারণে তাঁরা একমাত্র সন্তানের জীবন বাঁচানোর জন্য বিত্তবান ব্যক্তিদের সহয়াতা চেয়েছেন।

সহয়াতা পাঠানোর ঠিকানা: ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, কেশবপুর শাখা, সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর ২০৫০৩৮৮০২০০২৪৪৮০৬। এছাড়াও দানশীল ব্যক্তিরা আজিজুর রহমানের ০১৯৮২৮৫৪৩৬৬ (বিকাশ) নম্বর মোবাইলে যোগাযোগ করতে পারেন।

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা