,

ওসি মোয়াজ্জেমের গ্রেপ্তারে চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা সীমান্তে বাড়তি সতর্কতা

ওসি মোয়াজ্জেমের গ্রেপ্তারে চুয়াডাঙ্গা জেলার দর্শনা সীমান্তে
বাড়তি সতর্কতা

স্টাফ রিপোর্টারঃ ফেনীর সোনাগাজীর সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেন যাতে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা এড়িয়ে সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতে পালিয়ে যেতে না পারেন, সে জন্য চুয়াডাঙ্গার দর্শনা জয়নগর ইমিগ্রেশনসহ সীমান্ত এলাকায় বাড়তি সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এ-সংক্রান্ত একটি চিঠি দর্শনা ইমিগ্রেশনে এসে পৌঁছালে এ সতর্কতা জারি করা হয়।

এ খবর নিশ্চিত করে দর্শনা জয়নগর ইমিগ্রেশনের আইসি
উপপরিদর্শক (এসআই) রাশেদুল হাসান রাশেদ জানান, ‘ওসি
মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পরই পুলিশের হেডকোয়ার্টার থেকে জেলা পুলিশ সুপারের মাধ্যমে আমাদের কাছে তাঁর পাসপোর্ট নম্বরসহ বিস্তারিত তথ্য দেওয়া হয়েছে। যাতে তিনি এই ইমিগ্রেশন ব্যবহার করে কোনোমতেই ভারতে পালাতে না পারেন, আমরা তা নিশ্চিত করেছি।’

এসআই রাশেদ আরও জানান, দর্শনা জয়নগর ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে যাতায়াতরত সব ধরনের পাসপোর্টধারী যাত্রীদের ছবি ওয়ান্টেডভুক্ত তালিকার সঙ্গে মিলিয়ে নিয়ে তাদের নাম-পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পরেই আসা-যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন
নিপীড়নের অভিযোগে তার মা শিরীন আক্তার বাদী হয়ে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে গত ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলায় সিরাজ উদ দৌলাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের নামে নুসরাতের বক্তব্য ভিডিও করেন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন। পরে সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেন তিনি। এ ঘটনায় ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে গত ১৫ এপ্রিল ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে ডিজিটাল আইনে মামলাটি করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। এরপর ২৭ মে ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা
জারি করেন ওই আদালত।

এ জাতীয় আরো সংবাদ


ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা